আফ্রিকায় সিরিজ হারলে টেস্টও অধিনায়কত্ব হারাতে পারেন কোহলি

ইতিমধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের নিয়ে একাধিক প্রশ্ন তুলেছেন ক্রিকেটপ্রেমীরা। সাথে বিরাট কোহলির অধিনায়কত্বে এবং রাহুল দ্রাবিড়ের অধীনে ভারতীয় দলের প্রথম পরাজয়, কিছুতেই মানতে পারছেন না ভারতীয় ক্রিকেটপ্রেমীরা।

প্রথমবার সিরিজ জয়ের এত নিকটে এসেও জয় অধরাই রয়ে গেল। দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে প্রথম বার বিরাট কোহলির নেতৃত্বে সিরিজ জয়ের স্বপ্ন দেখছিল টিম ইন্ডিয়া। তবে সেই স্বপ্ন যে এখন দুঃস্বপ্নে পরিণত হয়েছে তা বলার অপেক্ষা রাখেনা। কেপটাউনের শুরু হওয়া সিরিজের তৃতীয় তথা শেষ ম্যাচ ছিল ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা টেস্ট সিরিজের নির্ণায়ক ম্যাচ। তবে বর্তমানে সেই তৃতীয় টেস্টে চালকের আসনে বসে রয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা।

দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের পূর্বে ভারতীয় টেস্ট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি টি-টোয়েন্টি এবং ওডিআই ক্রিকেটের নেতৃত্ব হারিয়েছেন। এই টেস্ট সিরিজ তার জন্য ছিল অগ্নিপরীক্ষা স্বরূপ। আগামীতে বিরাট কোহলি ভারতীয় দলের জন্য টেস্ট ক্রিকেটে নেতৃত্ব দেবেন কিনা সেটাও নির্ভর করছিল এই সিরিজের উপর। তবে গতকালই সিরিজের ফলাফল চলে এসেছিল ভারতের দ্বিতীয় ইনিংস শেষে। দ্বিতীয় ইনিংসে ভারত মাত্র ১৯৮ রান সংগ্রহ করতে সক্ষম হয়।

ফলশ্রুতিতে দক্ষিণ আফ্রিকার সামনে লক্ষ্যমাত্রা স্থির হয় মাত্র ২১২ রানের। দুর্দান্ত ফর্মে থাকা দক্ষিণ আফ্রিকান অধিনায়ক এলগার দ্বিতীয় ইনিংসে দুর্দান্ত শুরু করেন। তৃতীয় দিনের খেলা শেষে দক্ষিণ আফ্রিকা ২ উইকেট হারিয়ে ১০১ রান সংগ্রহ করে। জয়ের জন্য দক্ষিণ আফ্রিকার প্রয়োজন মাত্র ১১১ রান। হাতে রয়েছে এখনও মূল্যবান ৮ উইকেট এবং দুদিনের খেলা। এক রকম ভাবে বলতে গেলে ম্যাচ এখন পুরোপুরি ভাবে দক্ষিণ আফ্রিকার দখলে।

অর্থাৎ চলতি সিরিজে ভারতকে ২-১ ব্যবধানে পরাজিত করে সিরিজ জয় করতে চলেছে প্রোটিয়ারা। তবে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ভারতের ব্যাটসম্যানরা যেভাবে ব্যর্থ হয়েছেন তা রীতিমতো একাধিক প্রশ্নের সৃষ্টি করেছে ক্রিকেটপ্রেমীদের মনে। অধিনায়ক বিরাট কোহলি এবং উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান ঋষভ পন্থ ছাড়া আর কারোর ব্যাট থেকে নেই রান। ফলশ্রুতিতে ভারত এখন পরাজয়ের দোরগোড়ায় দাঁড়িয়ে।

গত ১১ই জানুয়ারি থেকে কেপটাউনে শুরু হয়েছিল সিরিজের শেষ ম্যাচ। যেখানে টসে জিতে প্রথমে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেন ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি। তবে ধারাবাহিক ব্যাটিং ব্যর্থতা ভারতকে অনেকটাই ম্যাচ থেকে বাইরে বের করে দেয়। বিরাট কোহলির ৭৯ রানের ইনিংসের ওপর ভর করে প্রথম ইনিংসে ভারত ২২৩ রান সংগ্রহ করে। তবে জসপ্রীত বুমরাহর বিধ্বংসী বলে বেশিদুর অগ্রসর হয়নি প্রোটিয়াদের প্রথম ইনিংস।

একের পর এক উইকেট তুলে প্রোটিয়াদের মাত্র ২১০ রানে অলআউট করে ভারতীয় বোলাররা। বলতে গেলে প্রথম ইনিংসে ভারতকে খেলায় ধরে রেখেছিল ভারতীয় বোলাররাই। ইতিমধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের নিয়ে একাধিক প্রশ্ন তুলেছেন ক্রিকেটপ্রেমীরা। সাথে বিরাট কোহলির অধিনায়কত্বে এবং রাহুল দ্রাবিড়ের অধীনে ভারতীয় দলের প্রথম পরাজয়, কিছুতেই মানতে পারছেন না ভারতীয় ক্রিকেটপ্রেমীরা। প্রথমবার সিরিজ জয়ের এত নিকটে এসেও জয় অধরাই রয়ে গেল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *