রাহানে-পুজারা হঠাও ভারতীয় দল বাঁচাও! সোশ্যাল মিডিয়ায় তীব্র সমালোচনা

পূজারা ও রাহানেকে একযোগে ‘পূরানে’ বলে ডাকা হচ্ছে বেশ কিছুদিন ধরেই। নেটিজেনদের ধারণা, নিতান্তই পুরানো হয়ে গিয়েছেন টিম ইন্ডিয়ার এই অভিজ্ঞ জুটি। তাই দু’জনকে বাদ দিয়ে নতুনদের সুযোগ দেওয়া হোক বলে দাবি তাঁদের।

ভারতীয় জাতীয় দলের দুই অভিজ্ঞ ক্রিকেটারকে নিয়ে রীতিমতো সমালোচনায় মেতেছেন ভারতীয় ক্রিকেট প্রেমীরা। সোশ্যাল মিডিয়ায় নয়া ট্রেন্ড #PURANE, রাহানে-পুজারা হঠাও ভারতীয় দল বাঁচাও। এমনিতে দীর্ঘদিন ধরে রান পাচ্ছেন না ভারতীয় এই দুই অভিজ্ঞ ক্রিকেটার। বলতে গেলে প্রায় দুই বছর ধরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে কোনরকম ধারাবাহিকতা নেই চেতেশ্বর পুজারা এবং অজিঙ্কা রাহানের।

শুধুমাত্র অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে দীর্ঘদিন ধরে ভারতীয় দলে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে আসছেন এই দুই ক্রিকেটার। তবে বিষয়টি একদম ভালো ভাবে নিচ্ছেন না ভারতীয় ক্রিকেটপ্রেমীরা। এবার সোশ্যাল মিডিয়ায় রীতিমতো ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করলেন তারা। বর্তমানে ভারতীয় দল দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে ব্যস্ত। এই সফরে মোট ৬ ইনিংস ব্যাট করে এখনো ১৫০ রানের গণ্ডি পার করতে পারেননি অজিঙ্কা রাহানে এবং চেতেশ্বর পুজারা।

বর্তমানে ভারতীয় দল নিঃসন্দেহে কঠিন পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার মোকাবেলা করছে। যেখানে জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল ভারতীয় দলের হয়ে কিছু সময় ব্যাটিং করার। সেখানেও পুরোপুরি ব্যর্থ এই দুই ক্রিকেটার। কেপ টাউনের শুরু হওয়া নির্ণয়ক ম্যাচে প্রথম ইনিংসে চেতেশ্বর পুজারা ৪৩ রান যুক্ত করলেও শেষ ইনিংসে দশের গণ্ডি পার করতে পারেননি তিনি। তাছাড়া ভারতীয় ক্রিকেটার হিসেবে টেস্ট ক্রিকেটে-

সর্বাধিক ‘গোল্ডেন ডাক’ পাওয়ার লজ্জাজনক রেকর্ড নিজের নামে করে ফেলেছেন চেতেশ্বর পুজারা। এদিকে অজিঙ্কা রাহানের ক্ষেত্রে সমীকরণটি আরো লম্বা। ৬ ইনিংসে তার সর্বোচ্চ রান ৫৩। ‘গোল্ডেন ডাক’ রয়েছে একবার। সিরিজের তৃতীয় ম্যাচের প্রথম ইনিংসে তিনি সংগ্রহ করেছিলেন মাত্র ৯ রান। দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ১ রান সংগ্রহ করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি। পূজারা ও রাহানেকে একযোগে ‘পূরানে’ বলে ডাকা হচ্ছে বেশ কিছুদিন ধরেই।

নেটিজেনদের ধারণা, নিতান্তই পুরানো হয়ে গিয়েছেন টিম ইন্ডিয়ার এই অভিজ্ঞ জুটি। তাই দু’জনকে বাদ দিয়ে নতুনদের সুযোগ দেওয়া হোক বলে দাবি তাঁদের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *