আসল পাঁচ কারণ: কী ভাবে রাজস্থানের কাছে হারল বেঙ্গালুরু!

বল হাতে প্রসিদ্ধ কৃষ্ণ এবং ব্যাট হাতে জস বাটলারের দাপটে উড়ে গেল বেঙ্গালুরু। এ বারও আইপিএল জেতার স্বপ্নপূরণ হল না বিরাটদের। এ বারের আইপিএল থেকে ছিটকে গেল রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর।

ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে রাজস্থান রয়্যালসের বিরুদ্ধে হেরে গেলেন বিরাট কোহলীরা। জস বাটলারের দাপটে স্বপ্নভঙ্গ তাঁদের। এই আইপিএলে চতুর্থ শতরান করে ফেললেন তিনি। মাত্র ১৫৭ রান তোলে বেঙ্গালুরু। বাটলারের বিরুদ্ধে সেই রান খুবই কম ছিল। ইংরেজ ব্যাটার অপরাজিত থাকলেন ১০৬ রানে। লখনউকে ছিটকে দিয়েও লাভ হল না বিরাট কোহলীর বেঙ্গালুরুর। আইপিএলের ফাইনালে উঠতে পারল না তারা।

শুক্রবার দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে রাজস্থানের কাছে হেরে গেল ৭ উইকেটে। আরও এক বার আইপিএল থেকে খালি হাতে ফিরছেন কোহলী। রাজস্থানের বিরুদ্ধে কী কী কারণে হারল বেঙ্গালুরু:
১। কোহলীর ব্যর্থতা। এমন গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচেও ব্যাট থেকে রান এল না কোহলীর। গোটা প্রতিযোগিতা জুড়েই রান পাননি তিনি। এই ধরনের চাপের ম্যাচেও দলের অন্যতম সেরা ক্রিকেটারের ছন্দের অভাবের ফল হাড়ে হাড়ে টের পেল বেঙ্গালুরু।

২। বেঙ্গালুরুর ব্যাটারদের বড় ইনিংসের অভাব। রজত পাটীদারের ৫৮ রান ছাড়া বেঙ্গালুরুর আর কোনও ব্যাটার রান পেলেন না। গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, দীনেশ কার্তিকরা আসল ম্যাচেই ডোবালেন।
৩। আগুনে ছন্দে জস বাটলার। কোহলী যেখানে ব্যর্থ, সেখানে কম রানের ম্যাচেও অসাধারণ ইনিংস খেলে গেলেন বাটলার। প্রতিযোগিতায় কমলা টুপি পাওয়া কার্যত তাঁর নিশ্চিত।

৪। রাজস্থানের কৃপণ বোলিং। প্রতিযোগিতার সবচেয়ে সফল বোলার যুজবেন্দ্র চহাল চার ওভারে ৪৫ রান দিয়ে একটিও উইকেট পেলেন না। কিন্তু প্রসিদ্ধ কৃষ্ণ, ওবেদ ম্যাকয়রা উইকেট যেমন নিলেন, তেমনই রানও দিলেন না।

৫। বেঙ্গালুরুর আগ্রাসনের অভাব। মরণ-বাঁচন ম্যাচ জিততে যে ধরনের আগ্রাসন দরকার, সেটা একেবারেই দেখা যায়নি বেঙ্গালুরুর মানসিকতা। ইডেনে যে আগ্রাসন দেখা গিয়েছিল, মোতেরায় গিয়ে তা কোথাও হারিয়ে গেল!

Leave a Reply

Your email address will not be published.