সবচেয়ে বেশি আইপিএল ফাইনালে উঠেছে এই ৪টি দল; চেন্নাই ১০ বার

২০২২ আইপিএলের ফাইনালে মুখোমুখি হবে রাজস্থান রয়্যালস ও গুজরাট টাইটান্স। রাজস্থানের মতই গুজরাটও তাদের প্রথম আইপিএল মরসুমে ফাইনালে ওঠার কৃতিত্ব অর্জন করেছে। গুজরাট টাইটান্স দল ফাইনালে ওঠার পরেই হার্দিক পান্ডিয়াকে বিভিন্ন ক্রিকেটমহলে ভারতের পরবর্তী অধিনায়ক হিসেবে দাবি করা হচ্ছে। এই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে আইপিএলের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশিবার ফাইনালে পৌঁছেছে যে চারটি দল, এবার দেখে নেওয়া যাক:

১) চেন্নাই সুপার কিংস: ১০ বার
আইপিএলের ইতিহাসে সবচেয়ে ধারাবাহিক দল চেন্নাই সুপার কিংস এবং ধোনির নেতৃত্বে দলটি চারবার শিরোপা জয়ের কৃতিত্ব অর্জন করেছে। সিএসকে ১১ বার প্লেওফসের মধ্যে ১০ বার ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে। ২০০৮ সাল থেকে এখনও পর্যন্ত এই দলকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। গতবারের চ্যাম্পিয়ন দল সিএসকে এবারে জঘন্য পারফর্ম করে এবং পয়েন্ট টেবিলের তলানীতে অবস্থান করেছে।

২) মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স: ৬ বার
মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের ক্ষেত্রে আইপিএল অভিযানটি খুব একটা ভালো হয়নি, তবে ২০১৩ সালে রোহিত শর্মা নেতৃত্ব ভার গ্রহণ করতেই দলটি সফলতম দল হয়ে ওঠে। এখনও পর্যন্ত মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স সর্বোচ্চ ৫ বার শিরোপা জয়ের কৃতিত্ব অর্জন করেছে। এই দলটি ৯ বার প্লেওফসের মধ্যে দিয়ে মোট ৬ বার ফাইনালে প্রবেশ করেছে। গত দুই মরসুম ধরে এই দলটির পারফরম্যান্স খুব একটা ভালো নয়। এবারে পয়েন্ট টেবিলের একেবারে নিম্নে অবস্থান করেছে।

৩) কলকাতা নাইট রাইডার্স: ৩ বার
কলকাতা নাইট রাইডার্স দলে অনেক দুর্দান্ত অধিনায়ক এসেছেন তবে গৌতম গম্ভীরের মতো কেউ সফল হতে পারেননি। ২০১২ ও ২০১৪ সালে দলটি চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। সেই থেকে প্রতিবারই আশা জাগিয়েও টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নিয়েছে তারা। গতবার কেকেআর রানার্স থাকে। এখনো পর্যন্ত দলটি মোট ৭ বার প্লেওফসের মধ্যে দিয়ে মোট ৩ বার ফাইনালে উঠেছে।

৪) রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু: ৩ বার
আইপিএলের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জিং দল হলেও প্রতিবারই নিরাশ হয়েছে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু। এবারের আইপিএলেও অন্যতম শক্তিশালী দল হিসেবে তারা দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করে কিন্তু শেষমেশ ফাইনালে ওঠার আগেই টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে যায়। যাইহোক এখনও পর্যন্ত এই দলটি ৮ বার প্লেওফসের মধ্যে দিয়ে ৩ বার ফাইনালে উঠেছে কিন্তু একবারও চ্যাম্পিয়ন হতে পারেনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.