এ বছর শেষেই অবসর নিতে পারেন এই তিন ভারতীয় ক্রিকেটার

জাতীয় দলের হয়ে খেলা প্রতিটি তরুণ ক্রিকেটারদের একটি স্বপ্ন থাকে। তবে সেই স্বপ্নের দুনিয়াকে কেবল তারাই জিইয়ে রাখেন যারা ধারাবাহিকভাবে পারফর্ম করতে সক্ষম হন। বিশেষ করে ভারতের মতো দলে কোনও খেলোয়াড় পারফরমেন্সের অভাবে বাদ গেলে তার ফিরে আসা কঠিন হয়ে পড়ে।

এছাড়াও প্রতিবছর অনেক দুর্দান্ত প্রতিভাসম্পন্ন খেলোয়াড়ের উদয় হয়, যার ফলে তাদের বাদপড়া ক্রিকেটারদের ক্যারিয়ার আরও ক্ষীণ হয়ে পড়ে। এই পরিস্থিতিতে জাতীয় দলের রাস্তা বন্ধ হলে কেউ কেউ অবসর ঘোষণা করেন। তবে এখনও কিছু ভারতীয় ক্রিকেটার জাতীয় দলে সুযোগের অপেক্ষায় দীর্ঘদিন লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন। সদ্যসমাপ্ত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও সুযোগের অপেক্ষায় ছিলেন, কিন্তু তা সম্ভব হয়নি। স্বাভাবিকভাবেই এবার তারা ক্রিকেটকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিদায় জানাতে চলেছেন।

১) দীনেশ কার্তিক:
২০০৪ সালে ধোনির আগে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পা রেখেছিলেন ভারতীয় উইকেটরক্ষক দীনেশ কার্তিক। তবে তিনি কখনোই নিয়মিত জাতীয় দলের হয়ে খেলে যেতে পারেননি। সর্বশেষ তিনি ২০১৯ ওয়ানডে বিশ্বকাপ খেলেছিলেন কিন্তু পারফরম্যান্সের অভাবে দল থেকে বাদ পড়েন। তিনি ভারতের হয়ে ৩২টি আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন। যেখানে ৩৩.২৫ ভালো ব্যাটিং গড় এবং ১৪৩.২৫ স্ট্রাইক রেট নিয়ে ৩৯৯ রান করেছেন। এখন তাকে ধারাভাষ্যকার হিসেবে দেখা যায়, হয়ত এবার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিদায় জানাতে পারেন।

২) হরভজন সিং:
৯০ দশকের ক্রিকেটার হরভজন সিং এখনও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিদায় জানান নি। সর্বশেষ তাকে ২০১৫ সালে জাতীয় দলের হয়ে খেলতে দেখা গিয়েছিল। তিনিও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের অপেক্ষায় ছিলেন, কিন্তু বিসিসিআইয়ের তরফে কোন সবুজ সঙ্কেত পাননি। এখন তিনিও প্রাক্তন ক্রিকেটারদের মত ধারাভাষ্য শুরু করেছেন। এছাড়াও একজন ক্রিকেট বিশেষজ্ঞ হয়ে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে সাক্ষাৎ করেন। এমন পরিস্থিতিতে এই ৪১ বয়সী ক্রিকেটারের আর জাতীয় দলে ফেরা সম্ভব নয়। তাই তিনিও ক্রিকেটকে বিদায় জানাতে চলেছেন।

৩) অমিত মিশ্র:
৩৮ বছর বয়সী লেগ স্পিনার অমিত মিশ্র এই পরিস্থিতিতে শীঘ্রই আনুষ্ঠানিকভাবে অবসর ঘোষণা করতে চলেছেন। তিনি তার শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচটি ২০১৭ সালে খেলেছিলেন। তিনি শেষ ম্যাচে ৫টি উইকেট নিয়ে ম্যান অব দ্যা ম্যাচ এবং ওই সিরিজে ‘প্লেয়ার অফ দ্যা টুর্নামেন্ট’ নির্বাচিত হন। দুর্ভাগ্যবশত এরপর আর একটিও ম্যাচ খেলার সুযোগ পাননি। বর্তমানে রবীচন্দ্রন অশ্বিন, যুজবেন্দ্র চাহাল কুলদীপ যাদব ও রবীন্দ্র জাদেজার মত স্পিনারের উত্থানে তার জাতীয় দলে ফেরা কঠিন হয়ে পড়েছে।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও তিনি উপেক্ষিত হন। সুতরাং এই বছরই অবসর ঘোষণা করতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *